স্টেট ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশে “ল ফেস্টিভ্যাল ২০১৮” সম্পন্ন

0

নতুনকিছু ডেস্ক।।  

বেশ আনন্দ ও উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্যদিয়ে বৃহস্পতিবার (৫ এপ্রিল) শেষ হল আইন বিভাগের ৫ দিনব্যাপী বর্ণাঢ্য আয়োজন “ল ফেস্টিভ্যাল ২০১৮”।

৫ দিনের অনুষ্ঠানমালায় ছিল আনন্দ র‍্যালি, বিতর্ক প্রতিযোগিতা, চলচ্চিত্র প্রদর্শনী, বিভিন্ন পণ্যের স্টল, ইনডোর, আউটডোর খেলাধুলা, মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক উৎসব ও ১৭তম ব্যাচের আনুষ্ঠানিক শিক্ষা সমাপনী অনুষ্ঠান।

১এপ্রিল শান্তির প্রতীক পায়রা উড়িয়ে ৫ দিন ব্যাপী অনুষ্ঠানের শুভ উদ্বোধন করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. মো. সাঈদ সালাম। এরপর বিশ্ববিদ্যালয় প্রাঙ্গন হতে শিক্ষক শিক্ষার্থীদের সম্মিলিত অংশগ্রহণে একটি র‍্যালি বের হয়। এতে অন্যান্যদের মাঝে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব.) মির্জা এজাজুর রহমান , আইন বিভাগের উপদেষ্টা অধ্যাপক ড. আসিফ নজরুল , বিভাগীয় প্রধান সহকারী অধ্যাপক জিনাত আমিনসহ অন্যান্য শিক্ষকমন্ডলী।

উৎসবের ২য় দিন ২ এপ্রিল দিনব্যাপী অনুষ্ঠিত হয় বিতর্ক প্রতিযোগিতা। “ল ফেস্টিভ্যাল ডিবেট প্রিমিয়ার লীগ – ২০১৮” শিরোনামে ১০ টি দলে ৩০ জন বিতার্কিক অংশ নেয়। বিকালে বিভাগীয় প্রধান সহকারী অধ্যাপক জিনাত আমিন , ল ডিবেটিং সোসাইটির মডারেটর সহকারী অধ্যাপক নাজিয়া রহমানসহ অন্যান্য শিক্ষকদের উপস্থিতিতে চূড়ান্ত পর্ব অনুষ্ঠিত হয় এবং বিজয়ী ও বিজিত দলের নাম ঘোষনার মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি টানা হয়।

৩য় দিন ছিল চলচ্চিত্র প্রদর্শনী, যেখানে প্রায় শতাধিক শিক্ষার্থীর উপিস্থিতিতে সকালের শো’তে হলিউডের ঝুমাঞ্জি ও বিকেলের শো’তে দেশীয় চলচ্চিত্র “হাজার বছর ধরে” প্রদর্শিত হয়। বেশ আগ্রহ ও উপভোগের সাথে সবাই চলচ্চিত্র প্রদর্শনী উপভোগ করেন। এদিকে যখন চলচ্চিত্র প্রদর্শনী চলছে, তখন প্রদর্শনীর বাইরে আইন বিভাগের শিক্ষার্থীরা বিভিন্ন রকম পণ্যের পসরা নিয়ে বসে বিভিন্ন স্টলে। মেয়েদের পোশাক, নখের ডিজাইন, মেহেদি পরানো, পিঠার স্টল, জুসের স্টল, পপকর্ন ও কোমল পানীয়সহ নানা রকম স্টলে মুখরিত হয়। এতে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য, রেজিস্ট্রার বিভিন্ন পণ্য কেনেন ও উদ্যোগের প্রসংশা করেন। এছাড়াও আইন বিভাগের উপদেষ্টা অধ্যাপক ড. আসিফ নজরুল, বিভাগীয় প্রধানসহ অন্যান্য শিক্ষকরা নানা রকম জিনিস কিনে শিক্ষার্থীদের উৎসাহ প্রদান করেন।

এদিকে ৪র্থ দিন ক্যারাম,দাবা, বল থ্রোয়িং, বেলুন বাস্টিং ও ক্রিকেট খেলায় মেতেছিল আইন বিভাগ। ছেলে-মেয়ে উভয়ের অংশগ্রহণে বিভিন্ন খেলা অনুষ্ঠিত হয়। যেখানে বিভাগের শিক্ষকরা নিজেরাও অংশ নেন এবং উপভোগ করেন।

৫ম দিন ছিল ১৭তম ব্যাচের শিক্ষা সমাপনী অনুষ্ঠান ও সাংস্কৃতিক উৎসব। বিভিন্ন খেলা ও প্রতিযোগিতার ক্রেস্ট এবং সার্টিফিকেট তুলে দেয়ার মাধ্যমে শুরু হয় ৫ম দিন। অতঃপর ১৭তম ব্যাচের শিক্ষা সমাপনী অনুষ্ঠানের আনুষ্ঠানিকতা শুরু হয়। এসময় এক আবেগঘন মুহুর্তের অবতারণা হয়। স্মৃতিচারণ করতে গিয়ে আবেগে আপ্লুত হয়ে পড়ে অনেকেই। ৪ বছরে বন্ধুদের সাথে কাটানো বিভিন্ন মুহুর্তের একটি পরিবেশনা উপস্থাপিত হয়। অনেকেই নীরবে তা দেখে চোখের জল ফেলে। এরপর বিদায়ী শিক্ষার্থীদের ক্রেস্ট প্রদান ও কেক কাটেন বিভাগের উপদেষ্টা অধ্যাপক ড. আসিফ নজরুল।

তিনি তার বক্তৃতায় বলেন, ‘এতো দ্রুত ভালবাসার মানুষগুলো কেন বিদায় নেয়?’ বিভাগের অন্যান্য শিক্ষার্থী ও শিক্ষকেরা এ সময় উপিস্থিত ছিলেন। কিছুক্ষণ পর আইন বিভাগ অ্যালামনাই এসোসিয়েশন বিদায়ী শিক্ষার্থীদের ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানায় ও অ্যালামনাই এসসিয়েশনের সাথে যুক্ত হতে আহ্বান জানায়। বিকালে শুরু হয় সাংস্কৃতিক পর্ব। নাচ,গান, কবিতা আবৃত্তি, তারকা টক-শো ও র‍্যাম্প-শো এর মাধ্যমে বিকেল ৬ টায় ৫ দিনব্যাপী অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘটে।

উক্ত অনুষ্ঠানে আইন বিভাগের সকল ব্যাচ অংশ নেয় ও উপভোগ করে পুরো ৫দিন। শেষে আবারও আগামী বছর এই ধরনের অনুষ্ঠান আয়োজনের প্রত্যয় ব্যক্ত করে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘোষণা করেন।

 

Share.

Leave A Reply

44 − 41 =