ড্রোন পৌঁছে দেবে সেহেরি

0

ড্রোন পৌঁছে দেবে সেহেরি। আধুনিক বিশ্বে এখন সম্ভব অনেক কিছুই। রোবটের দ্বারা খাবার তৈরি যেমন কল্পনার বাস্তব রূপ নিয়েছে সেই সাথে রেস্টুরেন্ট কিংবা হোটেল থেকে খাবার নিয়ে আসা খুবই সহজ হয়ে দাঁড়িয়েছে।

কমিউনিটি ডেভেলপমেন্ট অথরিটি (সিডিএ) ইউটি কাউন্সিল তাদের উদ্যোগের অংশ হিসাবে ‘সুহর অন আস’ ড্রোনের মাধ্যমে সেহেরি সরবরাহ করবে। তারা দুবাই ও উম্মে আল কুইন জুড়ে শ্রমিকদের জন্য ৩২ হাজার খাবার ডেলিভারি করার লক্ষ্য নিয়েছেন। ইউথ কাউন্সিলের প্রস্তাবে উদ্যোগটি গ্রহণ করেছে সংস্থাটি।

দুবাইয়ে অধিকাংশই প্রবাসী বসবাস করেন। স্থানীয় জনগনদের সংখ্যা তুলনামূলক কম। তাই সারাদিনের কর্ম ব্যাস্ততার খাবার তৈরি করা কিংবা ক্রয় করে নিয়ে আসা কষ্টকর হয়ে পরে তাদের জন্য। কিংবা অর্ডার করা খাবার ডেলিভারি হতেও সময় লেগে যায় বেশি। সেক্ষেত্রে ড্রোন হতে পারে পরিপুর্ণ একটি সমাধান।

তবে উন্নত দেশগুলোর চেয়ে উন্নয়নশীল দেশগুলোতে এই সুবিধা চালু হলে বেশ উপকার হবে রোজাদারদের।

একটি ড্রোন প্রায় ১০ টি মাঝারি সাইজের খাবারের প্যাকেট বহন করতে সক্ষম। ড্রোনটির ভিজুয়াল সাইট উন্নয়ন করা নিয়েও চলছে গবেষণা। সঠিক পথ এবং নামার সময় যেন কোনরকম সমস্যা না হয় সে বিষটিও লক্ষ্ রাখছে কর্তিপক্ষ।

গুগল ম্যাপের সাহায্যে অনুসন্ধান করে খাবার পৌঁছে দেবে ড্রোন। লোকেশন সংগ্রহের পর তা অনুসরণ করে নির্দিষ্ট রাস্তায় যাবে ড্রোনগুলো। আটটি চার্জিং ব্যাটারি রয়েছে ড্রোনগুলোতে। যা ১০ কেজি খাবার বহন করতে সক্ষম।

এ বিষয়ে সিডিএ সংস্থাটি বলেন, ‘কেন ড্রোন ব্যবহার করা হচ্ছে সে বিষয়ে ওই কোম্পানি জানিয়েছে, দুবাই শহরে স্থানীয় নাগরিকের সংখ্যা একেবারেই কম। অধিকাংশই প্রবাসী। যারা বিভিন্ন দেশ থেকে অর্থ উপার্জনের জন্য এখানে বসবাস করেন। দুবাইতে কাজের চাপের কারণে অনেক প্রবাসী রমজানে খাবার রান্না করার সময় পান না। আবার দূরে গিয়ে খাবার নিয়ে আসাও কঠিন।’

 

Share.

Leave A Reply

4 + four =