সুস্থভাবে ঈদ পালনের উপায়

0

রমজানের এক মাস রাখার পরে আমরা সবাই ঈদ আনন্দ উদযাপন করে থাকি। রোজায় যেহেতু একটা নিয়ম মাফিক খাবার খাওয়া হত। তাই ঈদে এই জন্য শারিরীকভাবে কিছু সমস্যা দেখা দিতে পারে কিছু খাবার খেলে। তাই সুস্থ থাকতে পরিহার করতে হবে সেসব খাবার। ঈদে কিভাবে সুস্থ থাকবে তা নিয়ে ডা. হুমায়ুন কবীর হিমু কিছু পরামর্শ দিয়েছেন। তা আমাদের নতুন কিছু ডটকমের পাঠকদের জন্য তুলে ধরা হল-

১.রোজার পরে ঈদের সময় খাবার পরে সবচেয়ে বেশি সমস্যা হয় বুকজ্বালা। সেজন্য ভাজা খাবার পরিহার করতে হবে।

২.ডায়াবেটিস যাদের আছে তারা তো মিষ্টি খাআর থেকে সংযত থাকে ঈদেও নিজেদের সংযত রাখুন। তবে স্যাকারিন বা অ্যাকারবোজ দিয়ে রান্না হলে খেতে পারেন অনায়াসেই।

৩. হার্টের রোগীদের জন্য ঈদে তেমন বাধানিষেধ নেই। তবে একসঙ্গে অতিরিক্ত খাবার খাবেন না।

৪. গর্ভবতী মায়েরা বেশি পরিমাণে মিষ্টিজাতীয় খাবার খাবেন না; গুরুপাক খাবেন না। একবারে বেশি পরিমাণে খাবেন না। যে খাবারগুলো সহজেই হজম হয়, সেগুলো অল্প পরিমাণে বারবার খান। সময়মতো খাবেন।

৬. শ্বাসকষ্টে ভুগছেন এমন রোগী খাওয়ার ব্যাপারে সচেতন হোন। গরুর মাংস, হাঁসের মাংস, হাঁসের ডিম, ইলিশ মাছ, বেগুন, নারিকেল, আনারস, পাকা কলায় হতে পারে অ্যালার্জি। এ থেকে বাড়তে পারে আপনার শ্বাসকষ্ট।  এ ছাড়া একবারে বেশি খেয়ে ফেললে বাড়তে পারে শ্বাসকষ্ট।

Share.

Leave A Reply

sixty eight − sixty four =