রাষ্ট্রীয় অর্থায়নে শিক্ষা যেন নিম্নমানের না হয়

0

শিক্ষা মানবাধিকার, রাষ্ট্রীয় অর্থায়নে শিক্ষা যেন নিম্নমানের না হয় বলে মন্তব্য করেছেন গণসাক্ষরতা অভিযানের নির্বাহী পরিচালক ও সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা রাশেদা কে চৌধুরী। 

রবিবার (১০ জুন) জাতীয় প্রেস ক্লাবে ‘মুভমেন্ট ফর ওয়ার্ল্ড এডুকেশন রাইটস’ এর আয়োজনে ‘শিক্ষা খাতে কেমন বাজেট চাই’ শীর্ষক সেমিনারে তিনি এসব কথা বলেন।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলাবিভাগের অধ্যাপক আবুল কাসেম ফজলুল হক, শিক্ষাবার্তার সম্পাদক অধ্যাপক এ এন রাশেদা, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের অধ্যাপক রোবায়েত ফেরদৌস এবং আরও শিক্ষাবিদ, গবেষকবৃন্দ।

রাশেদা কে চৌধুরী বলেন, গতবারের তুলনায় এবার বাজেটের পরিমাণ বৃদ্ধি পেয়েছে কিন্তু শিক্ষা খাতে দেড় শতাংশ বাজেট বরাদ্ধ কমেছে। সুতরাং সরকারের উচিৎ এই বাজেটকে ১৬ শতাংশে উন্নীত করা।

তিনি আরও বলেন, ব্যাঙের ছাতার মতো ব্যবসায়ী উদ্দেশে যে সমস্ত নিম্নমানের বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় গড়ে উঠেছে, তা সঠিকভাবে তদারকি করা। যাতে সাধারণ শিক্ষার্থীরা এদের কাছে প্রতারিত না হয়।

সেমিনারে সভাপতির বক্তৃতায় রোবায়েত ফেরদৌস বলেন, সরকার যদি সরকারি, আধাসরকারি স্কুল ও কলেজে বাজেট বরাদ্দ করতে পারে, তাহলে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের জন্য কেন নয়? কারণ, বর্তমানে সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের চেয়ে বেসরকারিতে বেশি শিক্ষার্থী পড়াশুনা করে। সুতরাং এই বৃহৎ পরিমাণের শিক্ষার্থীদের পেছনে রেখে শিক্ষার আসল উদ্দেশ্য বাস্তবায়ন করা সম্ভব নয়।

অনুষ্ঠানের শেষ পর্যায়ে মুক্ত আলোচনায় বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রায় শতাধিক শিক্ষার্থী ২০১৮-১৯ শিক্ষা খাতে বাজেটের উপর তাঁদের মতামত পেশ করেন।

Share.

Leave A Reply

− nine = one