ম্যাচ সেরা হবার কৃতিত্ব রবিভাই ও বিরাটের: রায়না

0

সিরিজ উইনিং কেপটাউন টি-টোয়েন্টিতে অলরাউন্ডার পারফরম্যান্সের জন্য ম্যাচ সেরা নির্বাচিত হলেন সুরেশ রায়না। ম্যাচ শেষে বিরাট ও রবি শাস্ত্রিকে অসংখ্য ধন্যবাদ জানালেন তিনি। ব্যাট হাতে ২৭ বলে করেন ৪৩ রান, এরপর বল হাতে ৩ ওভারে ২৭ রান দিয়ে নেন এক উইকেট।

ম্যাচ সেরা ঘোষিত হবার পর রায়না বলেন, ‘আসলে টি-টোয়েন্টিতে প্রথম ছ’ওভার খুব গুরুত্বপূর্ণ। তখনি নিজেদের চিনাতে হয় এবং আমরা ঠিক সেটাই করেছি। ব্যাটিংয়ের সময় প্রথম ছ’ওভার প্রচুর রান তুলেছি, ঠিক তেমন বোলিংয়ের সময় প্রথম ছ’ওয়ার রান দিইনি।’

এমন ঝড়ো ব্যাটিং এর পুরো কৃতিত্ব রবিভাই ও বিরাটের বলে জানিয়েছেন রায়না। তিনি বলেন, ‘রবিভাই আর বিরাট আমাকে মারার লাইসেন্স দিয়েছিলো। একটা কথা স্বীকার করতেই হবে, গত দু’মাসে দক্ষিণ আফ্রিকায় ভারতীয় দল যা যা করেছে তা অন্য কোনো টিম করতে পারেনি। এর কারণ টিম প্রসেস যা এক কোথায় অসাধারণ।’

ব্যাট করতে নেমে প্রথম বলেই ছয় মারার ব্যাপারে জিজ্ঞেস করলে রায়না উত্তরে বলেন, ‘যখন দেখলাম জায়গা পেয়েছি তখনি ভাবলাম ফ্লিকটা মেরে দেই। পড়ে নিজেই ভাবছিলাম, বাহ শর্টটা দারুণ হলো তো।

ম্যাচ সেরা রায়নার সাথে টুর্নামেন্ট সেরা তালিকায় নাম উঠে এলো পেসার ভুবনেশ্বর কুমারের। নাকল বল, স্লোয়ার এর মত বৈচিত্র বোলিং দিয়ে অসাধারণ পারফরমেন্স দেখিয়েছেন তিনি। এই সাফল্যের পেছনে কারণ কি জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘এসব সম্ভব করতে পাড়ার পেছনে মূল কারণ আইপিএল। এখানে প্রত্যেক বল নিয়ে আপনাকে ভাবতে হবে, মাথা খাটাতে হবে। করতে করতে হয়ে গেছে। আসলে প্রস্তুতিটাই আসল। প্রস্তুতি ঠিক থাকলে কোন কিছুই অসাধ্য নয়।’

টি-টোয়েন্টিতে বিরাট না খেলায় তাঁর পরিবর্তে অধিনায়কত্ব করেন রোহিত শর্মা।  তিনি বলেন, ‘ টেস্ট সিরিজের যা হলো এরপর যদি কেও বলতো ভারত ওয়ানডে আর টি-টোয়েন্টিউ সিরিজ জিতবে কথাটা লুফে নিতাম। দক্ষিণ আফ্রিকায় আসলে কখন যে বিপজ্জনক পরিস্থিতি তৈরি হয়ে যাবে বুঝা কঠিন।  কিন্তু আমরা এমন একটা দল যারা হারতে শিখিনি। আর সেটা শিখিনি বলেই আজ এই জায়গায়।’

Share.

Leave A Reply

twenty − fifteen =