মুটকোর্ট প্রতিযোগিতায় রানার-আপ এসইউবি

0

কক্সবাজার ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি (সিবিআইইউ) ও নেটওয়ার্ক ফর ইন্টারন্যাশনাল ল’ স্টুডেন্টস বাংলাদেশ (নীলস) আয়োজিত মুটকোর্ট প্রতিযোগিতায় রানার-আপ হয়েছে স্টেট ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশের (এসইউবি) আইন বিভাগ। এ ছাড়া একই বিভাগ থেকে আরেকটি দলও এ প্রতিযোগিতায় অংশ নেয়।  দলটি চতুর্থ স্থান অধিকার করে।

প্রতিযোগিতায় চ্যাম্পিয়ন হয় নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটি। ‘সেরা রিসার্চার’-এর পুরস্কার পায় চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় এবং ‘সেরা মেমোরিয়াল’-এর খেতাব পায়  কক্সবাজার ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি।

শুক্রবার (২ নভেম্বর) কক্সবাজার ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি ভবনে এই প্রতিযোগিতা হয়। প্রথমবারের মত জনস্বার্থ মামলার ওপর সিবিআইইউ এবং নীলসের সম্মিলিত প্রয়াসে এই ন্যাশনাল মুটের আয়োজন করা হয়। দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে মোট ১২ টি সরকারি-বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের ১৬ টি দল প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করে।

অংশগ্রহণকারী বিশ্ববিদ্যালয়গুলো হল, স্টেট ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়,  নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটি, ইস্ট- ওয়েস্ট ইউনিভার্সিটি, ড্যাফোডিল ইউনিভার্সিটি, সাউদার্ন ইউনিভার্সিটি, লিডিং ইউনিভার্সিটি, প্রিমিয়ার ইউনিভার্সিটি, সিলেট ইউনিভার্সিটি, মেট্রোপলিট্যান ইউনিভার্সিটি, বিজিসি ট্রাস্ট ইউনিভার্সিটি এবং কক্সবাজার ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি।

পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন সুপ্রিম কোর্টের সম্মানিত বিচারপতি এস. এম মজিবর রহমান। তিনি বলেন, ‌প্রতিযোগিতায় উপস্থিত সকল আইনের ছাত্র-ছাত্রীদের আইনের যুক্তি দেখে আমি অভিভূত। আমার কাছে মনে হয়েছে, আমি হাইকোর্টের বেঞ্চে বসে মামলা পরিচালনা দেখছি।’ তিনি আরও বলেন, ‌’ইতিহাসের পাতায় চোখ ফেরালে দেখা যাবে, যুগ যুগ ধরে যারা দেশ শাসন করেছেন তাঁরা সকলেই আইনের ছাত্র ছিলেন। যার ফলে তাঁদেরকে সত্যিকার অর্থে নেতা বলে সম্মানিত করা হয়। তোমরা যদি সেরকম নেতা হতে চাও তবে সে রকম দক্ষতা অর্জন করো, যা তোমাদের পেশাজীবনে সফলতা এনে দেবে।’

অনুষ্ঠানটির সভাপতিত্ব করেন কক্সবাজার ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির বোর্ড অব ট্রাস্ট্রির সভাপতি সালাউদ্দিন আহমেদ। এছাড়াও সম্মানিত অতিথিবৃন্দের আসনে ছিলেন, কক্সবাজার জেলা ও দায়রা জজ খন্দকার হাসান মোহাম্মদ ফিরোজ,  সিবিআইইউ’র বোর্ড অব ট্রাস্ট্রির সাধারণ সম্পাদক লায়ন মোহাম্মদ মজিবর রহমান, কোষাধ্যক্ষ প্রফেসর আব্দুল হামিদ, রেজিস্ট্রার নাজিমুদ্দিন সিদ্দিক, পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক এএমএস সাইফুর রহমান, সহকারী অধ্যাপক এবং বিভাগীয় প্রধান আবু সুফিয়ান মোহাম্মদ তাজউদ্দিন এবং আইন বিভাগের প্রভাষক ও নীলস বাংলাদেশের সভাপতি নাসরিন সুলতানাসহ আরও অনেকে।

Share.

Leave A Reply

one × six =