বুধবার শুরু হচ্ছে প্রতিবন্ধী শিশু-কিশোরদের বার্ষিক ক্রীড়া উৎসব

0

আসাদুল্লা লায়ন

বাংলাদেশের মতো উন্নয়নশীল দেশগুলোতে প্রতিবন্ধীদের সংখ্যা মোট জনসংখ্যার ১০ শতাংশ। প্রতিবন্ধীদের প্রতি মানুষের দৃষ্টিভঙ্গির পরিবর্তন হলেও এখনো অনেক ক্ষেত্রেই বঞ্চিত তারা।

তাদের নিয়ে কাজ করেছে বিভিন্ন সরকারি, বেসরকারি ও আন্তর্জাতিক সংগঠন। তাদের মধ্যে অন্যতম জাতীয় প্রতিবন্ধী ক্রীড়া সমিতি (এনএএসপিডি), এনএএসপিডি আয়োজনে মহান বিজয় দিবস উপলক্ষ্যে আগামী ১৪ ডিসেম্বর বুধবার থেকে শুরু হতে যাচ্ছে দুইদিনব্যাপী ‘বিশেষ শ্রেণির শিশু-কিশোরদের বিজয় দিবস বার্ষিক ক্রীড়া উৎসব’। আর এই আয়োজনে পৃষ্ঠপোষকতা করছে দেশের স্বনামধন্য ইলেকট্রিক্যাল, ইলেকট্রনিকস, অটোমোবাইলস ও হোম অ্যাপ্লয়েন্স প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান ওয়ালটন।
শনিবার বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামের তৃতীয় তলার সভাকক্ষে এ বিষয়ে এক সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন পৃষ্ঠপোষক প্রতিষ্ঠান ওয়ালটন গ্রুপের স্পোর্টস এন্ড ওয়েলফেয়ার বিভাগের প্রধান এফএম ইকবাল বিন আনোয়ার (ডন), জাতীয় প্রতিবন্ধী ক্রীড়া সমিতির (এনএএসপিডি) সভাপতি মেজর মোহাম্মদ ইয়াদ আলী ফকির (অব:) ও মহাসচিব সেলিনা আক্তার, বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামের প্রশাসক মো. ইয়াহিয়াসহ অন্যান্যরা।

এক বক্তব্যে এফএম ইকবাল বিন আনোয়ার বলেন, ‘আমরা প্রতি বছর অনেক আয়োজনে পৃষ্ঠপোষকতা করি। তাদের মধ্যে বিশেষ শিশু-কিশোরদের আয়োজনের সংখ্যা বলতে গেলে খুবই কম। ওয়ালটন গ্রুপ বিশেষ শিশু-কিশোরদের সব সময় গুরুত্ব দিয়ে বিবেচনা করে। তাই আমরা চেষ্টা করছি আমাদের এই বিশেষ শ্রেণির শিশু-কিশোরদের জন্য বছরে কমপক্ষে তিনটি ক্রীড়া উৎসবের আয়োজন করার। একটি গ্রীষ্মকালীন, একটা শীতকালিন অন্যগুলো হতে পারে বিজয় দিবস কিংবা অন্য কোনো বিশেষ দিবস উপলক্ষ্যে। আসলে বিশেষ শিশু-কিশোরদের জন্য ক্রীড়া উৎসব আয়োজন করে তাদের যদি একদিনের জন্যও আমরা আনন্দ দিতে পারি সেটার রেশ কমপক্ষে একমাস তাদের মধ্যে কাজ করবে। এই ধরণের আয়োজনে তারা ভীষণ খুশি হয়। এর আগে আমরা ওয়ালটন পরিবার ‘সুইড’ বাংলাদেশের সঙ্গে বিশেষ শিশু-কিশোরদের জন্য কাজ করেছি। গেল কয়েকবছর ধরে এনএএসপিডির সঙ্গে সম্পৃক্ত হয়েছি। ওয়ালটন পরিবার সব সময় এই বিশেষ শ্রেণির শিশু-কিশোরদের নিয়ে কাজ করতে আগ্রহী। যেসব প্রতিষ্ঠান তাদের নিয়ে সত্যিকার অর্থেই ভালো কাজ করছে তারা আমাদের কাছে এলে যথাসম্ভব সহযোগিতা করার চেষ্টা করছি এবং ভবিষ্যতেও ইনশাল্লাহ আমরা করব।’

ওয়ালটন গ্রুপকে ধন্যবাদ জানিয়ে জাতীয় প্রতিবন্ধী ক্রীড়া সমিতির (এনএএসপিডি) সভাপতি মেজর মোহাম্মদ ইয়াদ আলী ফকির (অব:) বলেন, ‘ওয়ালটন গ্রুপ গেল দুই বছর ধরে আমাদের সঙ্গে নিয়মিতভাবে যুক্ত হচ্ছে। বিজয় দিবস উপলক্ষ্যে আয়োজিত এবারের এই আয়োজনেও তারা সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিয়েছে। ওয়ালটন পরিবার আমাদের এই বিশেষ শিশু-কিশোরদের ক্রীড়া উৎসবে পৃষ্ঠপোষকতায় এগিয়ে আসায় তাদের কাছে আমরা কৃতজ্ঞ। পাশাপাশি ওয়ালটনকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করছি।’

জাতীয় প্রতিবন্ধী ক্রীড়া সমিতির (এনএএসপিডি) মহাসচিব সেলিনা আক্তার বলেন, ‘ওয়ালটন গ্রুপকে ধন্যবাদ জানাই। নিয়মিতভাবে তারা আমাদের নানা আয়োজনে পৃষ্ঠপোষকতা করছে। ওয়ালটন গ্রুপের মতো অন্যান্য যেসব প্রতিষ্ঠান রয়েছে তারা যদি এগিয়ে আসে তাহলে এই বিশেষ শিশু-কিশোরদের জীবনযাত্রা ও সামাজিক অবস্থান আরো ভালো হতে পারে।’
ওয়ালটন পৃষ্ঠপোষকতায় অনুষ্ঠিত বিশেষ শিশু-কিশোরদের ক্রীড়া উৎসব বিভিন্ন প্রতিবন্ধী স্কুল ও সংগঠন থেকে প্রায় তিন শতাধিক প্রতিযোগী অংশগ্রহণ করবে। ১৫টি ক্যাটাগোরিতে অনুষ্ঠিত হবে এই বিজয় দিবস ক্রীড়া উৎসব। সাধারণত স্পেশাল ও প্যারা অলিম্পিকে যে ধরণের ইভেন্ট থাকে তার মধ্যে যেগুলো বাংলাদেশের সামর্থের মধ্যে রয়েছে সেগুলো নিয়ে প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হবে।

Share.

Leave A Reply

÷ one = two