বার্ধক্য আর নয়

0

কাজী নজরুল ইসলামের ‘যৌবনের গান’ প্রবন্ধে তিনি বলেছিলেন যে বার্ধক্য মানুষের শরীরকে গ্রাস করে, মনকে নয়। শরীরে বার্ধক্য চলে আসা এক চিরন্তন সত্য। বয়স হওয়ার সাথে সাথে চলে আসে নানান সমস্যা যেমন হজমে সমস্যা, স্মৃতি লোপ পাওয়া, শ্রবণ শক্তি হ্রাস, দৃষ্টি শক্তি হ্রাস, ভারী কাজ করার খমতা লোপ পাওয়া ইত্যাদি। বিশ্বের কোন ব্যাক্তিকে তার একটি ইচ্ছা পূরনের সুযোগ দিলে তিনি বার্ধক্যকেই দূরে ঠেলে দিতে চাইবেন এমনটা অস্বাভাবিক কিছু নয়। এই বার্ধক্যকে ঠেকিয়ে রাখতে চলছে নানারকম গবেষণা।

তাই একদল গবেষক শুরু করেছেন এমনি এক নতুন গবেষণা যা বার্ধক্যকে কিছুটা দমিয়ে রাখতে পারবে। ২০১৬ সালের নভেম্বর মাস থেকে একদল গবেষক প্রাথমিকভাবে ইঁদুরের উপর এ গবেষণা চালান। টিনএজারদের রক্ত থেকে নেওয়া প্লাজমা বয়স্ক ইঁদুরের দেহে প্রবেশ করানোর ফলে তাদের বোধশক্তি, স্মৃতি ও শরীরের কার্যক্রমে উন্নতি দেখা গেছে। রক্ত দেওয়ার পর ইঁদুরগুলো আঁকাবাঁকা পথ ধরে চলাচল করতে গিয়ে তাদের পথ, যে ইঁদুর গুলো এই রক্ত গ্রহন করেনি তাদের থেকে ভালো মনে রাখতে পেরেছে। ভবিষ্যতে ঠিক এভাবেই গবেষণার মাধ্যমে বার্ধক্যকে দূরে ঠেলতে পারবেন বলে আশা ব্যক্ত করেন গবেষকেরা।

সূত্র : বিবিসি।

Share.

Leave A Reply

× four = 8