বাংলাদেশে রোহিঙ্গাদের জীবনযাপন নিয়ে আলোকচিত্র প্রদর্শনী  

0

দেশহীন, গৃহহীন এবং গণহত্যার শিকার কক্সবাজারের কুতুপালঙ্গে শরণার্থী শিবিরে মানবেতর জীবন যাপনকারী রোহিঙ্গা নামে একদল মানুষ। বায়েজীদ আকতারের ক্যামেরায় ফুটে ওঠেছে সেই করুন আলোকচিত্র।

জাতীয় জাদুঘরে গতকাল ৫ জানুয়ারি ২০১৮ বিকাল ৪ টায় উদ্বোধন হলো ডেইলি সানের প্রধান আলোকচিত্র সাংবাদিক বায়েজীদ আকতারের সপ্তম আলোকচিত্র প্রদর্শনী। এবারের আলোকচিত্রের প্রতিপাদ্য বিষয় ছিলো ‘দি স্টেটলেস রিফুজিস ইন  বাংলাদেশ’। আলোকচিত্র প্রদর্শনীটি চলবে চলতি মাসের ৯ তারিখ পর্যন্ত।

আলোকচিত্র প্রদর্শনীর শুভ উদ্বোধন করেন অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি প্রখ্যাত ইতিহাসবিদ ড. সৈয়দ আনোয়ার হোসেন। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, অ্যাডভোকেট আফজাল হোসেন, তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ এবং অধ্যাপক রোবায়েত ফেরদৌস, গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে ড. সৈয়দ আনোয়ার হোসেন বলেন, বাংলাদেশের পক্ষ্যে বেশি দিন রোহিঙ্গাদের রাখা সম্ভব নয়। কারণ, বাংলাদেশ ছোট্ট একটি দেশ, এ দেশের অর্থনীতিও সীমাবদ্ধ। সুতরাং মায়ানমারকে রোহিঙ্গাদের নাগরিকত্য দিয়েই তাঁদের জন্মভূমিতে ফিরিয়ে নিতে হবে।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে অ্যাডভোকেট আফজাল হোসেন বলেন, ছবি কথা বলে। রোহিঙ্গারা যে কতোটা নির্যাতনের শিকার তা বায়েজীদ আকতারের আলোকচিত্রই সাক্ষ্য বহন করে।

অধ্যাপক রোবায়েত ফেরদৌস বলেন, একটি আলোকচিত্রই পারে একটি চলমান যুদ্ধ থামিয়ে দিতে। যেমনটি পেরেছিলো ভিয়েতনাম যুদ্ধে ফোটা নাপাম বোমের আক্রমণ থেকে বাঁচতে ছুটে আসা এক উলঙ্গ বালিকার ছবি। সুতরাং বায়েজীদ আকতারের প্রায় প্রত্যেকটি আলোকচিত্র রোহিঙ্গাদের মানবেতর জীবন থেকে রেহাই পেতে সেই গুরুত্বই বহন করে।

বায়েজীদ আক্তার বলেন, তাঁর এ ক্ষুদ্র প্রয়াস যদি রোহিঙ্গাদের অধিকার আদায়ে কাজে লাগে, তাহলে তাঁর এ অক্লান্ত পরিশ্রম সার্থক।

Share.

Leave A Reply

eighteen + = twenty