বর্ষায় ঘুরতে পারেন যে জায়গাগুলোতে

0

নতুন কিছু ডেস্ক।। 

আরাকু উপত্যকা, অন্ধ্রপ্রদেশ: বিশাখাপত্তনমের পূর্বঘাটের একটি হিল স্টেশন আরাকু ভ্যালি। গলিকোণ্ডা, রত্নকোণ্ডা, চিতামোগোন্ডি ইত্যাদি পাহাড়ে ঘেরা এই জায়গা বর্ষায় অপূর্ব রূপ ধারণ করে৷ওক, পাইন, ইউক্যালিপ্টাসে ছাওয়া সবুজ পাহাড়ে ছড়িয়ে-ছিটিয়ে থাকা আদিবাসী গ্রাম, আর রাঙামাটির পথ নিয়ে সুন্দরী উপত্যকা আরাকু। নির্জন প্রকৃতির মনোহর রূপের মায়াতেই এখানে কয়েকটা দিন কাটিয়া দেওয়া যায়। ৭ কিলোমিটার দূরে ডুম্বুরিগুডা জলপ্রপাত।

গোয়া, মহারাষ্ট্র: প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের স্বর্গরাজ্য গোয়া বর্ষায় যেন আরও মোহময় হয়ে ওঠে। পশ্চিমঘাট পাহাড়শ্রেণির কোলের গোয়াকে বর্ষায় দেখে মনে হয়, কে যেন গোটা প্রদেশটাকে সবুজ জাজিমে মুড়ে দিয়েছে।আর সেইসঙ্গে রয়েছে আরব সাগরে ঢেউ৷

লাহুল-স্পিতি, হিমাচলপ্রদেশ : লাহুল-স্পিতি খ্যাত তার নৈসর্গিক শোভা, মনাস্ট্রি, গ্লেসিয়ার আর লেকের জন্য। গাছপালা নেই, ন্যাড়া পাহাড়, উপত্যকা জুড়ে বরফ আর গ্লেসিয়ার। সূর্যের প্রখর কিরণ, কনকনে বাতাস, গ্রীষ্মের দিনেও শীতের আধিক্য

কেরল: বর্ষায় অন্যতম পর্যটনস্থল হতে পারে কেরল। কারণ সারাবছর কেরলের আবহাওয়া ভালো থাকে। বিশেষ করে এই বর্ষার সময়ে আবহাওয়া সবচেয়ে মনোরম থাকে। এখানকার সবুজ পাহাড, চা বাগান, পাহাড়ি ঝরনা দেখলে একেবারে মন ভালো করে ফিরতে পারবেন। এতে সন্দেহ নেই।কেরলের অন্যতম জনপ্রিয় ও সেরা সমুদ্র সৈকত হল কোভালম। বর্ষায় এই সৈকত অনন্য রূপ ধারণ করে।

কেরলের অন্যতম সেরা আকর্ষণ আতিরাপল্লী জলপ্রপাত। বহু ভারতীয় সিনেমার শুটিং এখানে হয়েছে। ভরা বর্ষায় এর রূপ সবচেয়ে সুন্দর ও ভয়ঙ্কর হয়ে ওঠে। তবে এখানে গেলে অবশ্যই সাবধানতা অবলম্বন করবেন।

লেহ, লাদাখ : লাদাখ মানেই, চোখের সামনে ভেসে ওঠে এক রঙিন পাহাড়ি উপত্যকার ছবি। ঘন নীল আকাশের নিচে দাঁড়িয়ে থাকা রংবেরঙের পাহাড়, ভেসে চলা সাদা মেঘের সারি, নীলকান্ত মণির মতো ঘন নীল সরোবর। এক বিস্তীর্ণ শীতল পাহাড়ি উপত্যকা।লাদাখের মনমাতানো পরিবেশ উপভোগ করতে চাইলে সেরা সময় জুলাই মাস। অসাধারণ প্রাকৃতিক পরিবেশ তো আছেই, তাছাড়াও অংশ নিতে পারেন অন্যতম হেমিস উৎসবে। এটা উত্তর ভারতের অন্যতম রঙিন উৎসব।

পুরী, ওড়িশা : যদি উৎসবের কথাই হয়, তবে জুলাই মাসের ঘুরতে যাওয়ার অন্যতম জায়গা পুরী। জগন্নাথ রথযাত্রার উৎসবে সামিল হতে পারবেন।

মাউন্ট আবু, রাজস্থান : দূর থেকে দেখতে পাবেন আরাবল্লী পর্বতের সৌন্দর্য। ঠিক যেন ছবির মতো। পাহাড়ি এই জায়গায় বৃষ্টির দিনগুলো অসাধারণ হয়ে ওঠে।

শিলং, মেঘালয়: মেঘালয় হচ্ছে মেঘেদের বাড়ি। কবিদের অনুপ্রেরনার ও চিত্রকরদের ক্যানভাস।এখানে রয়েছে পাইন অরণ্য, জলপ্রপাত ও পাহাড়ি জলধারার সমারোহ৷ বৃষ্টি দেখার জন্যই চেরাপুঞ্জি (খাসি ভাষায় সোহরা) যাওয়া। এছাড়া রুট ব্রিজ, ডাউকি রিভার আর একাধিক জলপ্রপাত আপনার মনের সমস্ত ক্লান্তি মিটিয়ে দেবে৷

Share.

Leave A Reply

19 + = twenty