নতুন বইয়ের ঘ্রাণ পাগল করার মতো

0

বই প্রেমীদের কাছে নতুন বইয়ের ঘ্রাণ পাগল করার মতো। সকালে ঘুম থেকে ওঠে বাবার হাত ধরে বই মেলায় যাওয়া এই এক নতুন স্বপ্ন। তাহমিনা তাই ভাবছিলেন। এক সময় পুরনো ঢাকার শাঁখারি বাজারের পাশেই একমাত্র মেয়ে বাবা মায়ের সাথে থাকতেন। বাবা মা দু’জনেরই খুব আদরের ছিলেন তাহমিনা।

ছোট্ট তাহমিনা ফেব্রুয়ারি মাস আসলেই বাবার হাত ধরে চলে যেতেন অমর ২১ শে বই মেলায়। এ দোকান সে-দোকান করে পুরো বিকালটাই কাটিয়ে দিতেন বাবার সাথে। নতুন বইয়ের ঘ্রাণে পাগল হয়ে যেতেন তিনি। হাত ভরে বই কিনতেন। সবচেয়ে বেশি পছন্দের বই ছিলো রুশ লেখকের ছোটদের গল্পের বই। কারণ ওদের বইগুলো লেখার মাধ্যমে জীবন চিত্রায়িত করার এক অনন্য উদাহরণ।

তাহমিনার বাবা মাঝে মাঝে তাহমিনার বন্ধুদের নিয়েও আসতেন মেলায়। সবাইকে সবার পছন্দ মতো বই কিনে দিতেন। মনে পড়ে, এক ফেব্রুয়ারি জুড়ে তাহমিনা ভীষণ অসুস্থ। মেলায় যেতে পারছেন না। তাই বন্ধুরা মিলে তাহমিনাকে হাতে কাঁধে ধরে মেলায় নিয়ে যায়। বাসায় ফিরে তাহমিনার মনে হয়েছে অর্ধেকটা সুস্থ হয়ে গেছেন। এটাই ছিলো বন্ধুদের শক্তি।

একটা বই কিনে সারারাত ধরে পড়তেন। শেষ না হলে উঠতেন না। দেখা যেত অনেক সময় সকালের সূর্য ওঠে যেত। তাহমিনা পড়ছেনই। বার বার বারান্দায় পায়চারি করতেন। বাবা করিম সাহেব সপ্তম কিংবা অষ্টম শ্রেণিতে পড়ুয়া একটা মেয়ের এমন পড়ার অভ্যাস দেখে অবাক বনে যেতেন। মাঝে মাঝে বাবা খাবার রেডি করে মেয়েকে খাওয়াতেন। মা মাঝে মাঝে বকতেন কিন্তু তাহমিনার বাবা বারণ করতেন। তিনি বলতেন, যার নতুন বইয়ের প্রতি ভালোবাসা নেই, হয় সে নির্দয়, না হয় তাঁর ভালোবাসা তাঁকে ছেঁড়ে বিদায় নিয়েছে।

আজ ২০১৮ একুশে ফেব্রুয়ারির তৃতীয় দিন। বাবাকে খুব মনে পড়ছে তাহমিনার। আজকে তাঁর মেয়ে তুলিকে নিয়ে তিনি বই মেলায় ঘুরে আসছেন। কিন্তু আজ আর বাবার হাত ধরা সম্ভব হলো না। তাই বাবার কথা মনে করে একদিকে ভালোবাসা আর অন্যদিকে বেদনা নিয়ে তাহমিনা মেলা উপভোগ করেছেন। প্রতিটি বইয়ের স্টলে আজও বাবার হাতের পরশ পাওয়া যায়। মনে হয়, গেল বছরটি আজকের মেলায় ফিরে এসেছে।

মেলার বাহিরে অনেক ছোট, বড়, মাঝারি বয়সের দর্শনার্থীদের সারি বেঁধে মেলায় প্রবেশ এক অনন্য আবহ তৈরি করেছে মেলার পরিবেশকে ঘিরে। সবাই যে মেলায় বই কিনতে যায় তা নয়। অনেকেই আপন বা কাছের মানুষের সাথে আরেকটু সুন্দর মুহূর্ত কাটানোর জন্যও মেলায় যান। বিদেশিদের হাতে বাংলা বই ও তাঁদের মুখে কবিতা বা ছড়ার আবৃত্তি মন আরেকবার হারিয়ে যায় অজানায়।

Share.

Leave A Reply

seventy six − = seventy one