দিনাজপুরের স্বপ্নপুরী

0

মো. মাহবুব আলম

দিনাজপুর জেলার ৫২ কি.মি. দক্ষিণে নবাবগঞ্জ উপজেলার আফতাফগঞ্জে স্বপ্নপুরী অবস্থিত। আয়তন এর দিক দিয়ে ৪০০ বিঘা জমি নিয়ে তৈরি করেছে এটি, এটি অত্যন্ত সুন্দর আপনারা যদি কখনও যান তবে আপনাদের মনে হবে স্বপ্নপুরীর এক স্বপ্নের জগৎ। এটি স্থাপন করেছিলেন ১৯৮৯ সালে।এ উপজেলার কুশদহ ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান ও প্রকৃতি প্রেমি দেলোয়ার হোসেনের ব্যক্তিগত উদ্যোগে একটি পিকনিক কর্নার গড়ার পরিকল্পনায় গড়ে উঠে এ স্পট। ১৯৯০ সাল থেকে বিনোদনের জন্য উন্মুক্ত করে দেয়া হয় স্বপ্নপুরী।

স্বপ্নপুরী হচ্ছে বিনোদন কেন্দ্র। এইট-সিমেন্টে নির্মিত কৃত্রিম কৃত্রিম চিড়িয়াখানা, জীবন্ত পশুপাখিদের চিড়িয়াখানা,শিশুদের জন্য পার্ক, দোলনা, বায়স্কোপ, রয়েছে দেশী-বিদেশী বিভিন্ন পশু-পাখির অবিকল ভাস্কর্য, কৃত্রিম পাহাড়, কৃত্রিম নানা ধরণের জীবজন্তু। এখানে সারি সারি দেবদারু গাছের সবুজ সৌন্দর্য আর ফুলবাগানে গোলাপ গাঁদাফুলের সমারোহ করে মানব মনের বিনোদনের খোরাক জুগিয়ে থাকে।ফুলবাগানের মাঝে রয়েছে স্থাপিত অপরূপ সুন্দর “নিশিপদ্ম”। এখানে রয়েছে বিশাল আকারে দিঘি, দিঘিতে স্পিড-বোট ও ময়ূরপঙ্খী-নাও, দুইজোড়া চালিত টমটম, হরেক রকম সুগন্ধ ও সৌন্দর্য এবং স্বচ্ছ পানির ফোয়ারা বিশিষ্ট কয়েকটি ফুল বাগান এবং বিশ্রামের জন্য আকর্ষণীয় রেষ্টহাউস ও ডাকবাংলোসহ বিনোদনের আরও অনেক উপকরণ। তাছাড়া ১৯৫২ থেকে ১৯৭১ সাল পর্যন্ত আন্দোলন ও সংগ্রামের চিত্র শৈল্পিক ভাবে নতুন প্রজন্মের জন্য দেয়ালে দেয়ালে বা দর্শনীয় স্থানে মোড়াল চিত্র তৈরি করা হয়। দিবারাত্র আগত ভ্রমণকারীদের নিরাপত্তাসহ সার্বিক কাজ তদারকির জন্য সাবর্ক্ষণিকভাবে নিযুক্ত রয়েছে বিশ্বস্ত কর্মচারী,

স্বপ্নপুরীতে দূরদূরান্ত থেকে পর্যটক আসলে সেখানে খুব কম খরচে থাকার সুব্যবস্থা আছ।বছরের প্রতিদিনই শত শত মানুষ এখানে পরিবার-পরিজন নিয়ে আসেন বিনোদনের জন্য।দিনাজপুর মেইন শহরে আছে ডাক বাংলো ও সরকারি ভবনগুলোতেও রাত্রিযাপন করা যাবে, অবশ্যই এখানে আসার আগে বাংলো অথবা আবাসিক হোটেল কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করে আসতে হবে এতে আপনাদের থাকার কোন প্রকার অসুবিধা হবে না।আপনি বাংলাদেশের যেকোনো স্থান থেকে দিনাজপুর জেলার আফতাফগঞ্জে স্বপ্নপুরীতে যে কোন ছুটিতো সপরিবার বন্ধু বান্ধবকে নিয়ে এই সুন্দর মনোরম স্বপ্নপুরীর স্বপ্নের জগৎ ঘুরে আসতে পাড়েন।

লেখক- এক্সিকিউটিভ, জার্নালিজম, কমিউনিকেশন অ্যান্ড মিডিয়া স্টাডিজ বিভাগ
স্টেট ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ।

Share.

Leave A Reply

35 + = 41