ট্রাফিক পুলিশের ইফতার

0

মাহে রামজানের প্রতি সন্ধ্যায় যখন শ্রেনী সমাজ নির্বিশেষে ঢাকার নাগরিকেরা পরিবার বা বন্ধু-বান্ধবদের ইফতারি আনন্দে মাতে উঠেন ঠিক তখনই রোদ, বৃষ্টি, ঝড়- সবকিছুকেই উপেক্ষা করে ঢাকার মানুষের যাত্রাকে নির্বিঘ্ন রাখতে সব সময় ব্যস্ত ও কর্তব্যরত রাস্তায় অতন্দ্র প্রহরী হিসেবে থাকেন ঢাকার ট্রাফিক পুলিশেরা।

আমরা ঢাকার নাগরিকেরা অনেকেই প্রায়শই ভুলে যাই কিন্তু রোদে পুড়ে, বৃষ্টিতে ভিজতে থাকা এই ট্রাফিক পুলিশও যে আমাদের মত রক্তে-মাংসে গড়া একজন মানুষ।

কখনো ভেবেছেন কি, কিভাবে ট্রাফিক পুলিশেরা ইফতার করেন? তাদের নিয়ে আজকের লেখনী রাজধানী সেইসব ট্রাফিক পুলিশদের প্রতি উৎসর্গিত করে এই লেখা, যারা নিজেদের দ্বায়িত্ব পালন করতে গিয়ে নিজের পরিবার পরিজন ছেড়ে রাস্তায় ইফতারি করেন গোটা রমজান মাসটা জুড়ে।

ঘড়িতে তখন সাড়ে প্রায় ৬টার মত। রাজধানীর মিরপুর সড়কের ধানমন্ডি ৩২ এর মোড়ে তখন রাস্তায় তীব্র যানজট ইফতারের সময় হয়ে আসছে সবাই ছুটছে বাড়ী আপনজনের সাথে ইফতার করাবার কিন্তু রাস্তার মোড়েই দ্বায়িত্বরত তেজগাঁও জোনের পুলিশের সার্জেন্ট শামশুযোহা হাতে ওয়াকি টকি অনবরত হাত নাড়িয়ে গাড়িদের এগিয়ে যেতে বলছেন এদিকে উনি ছাড়াও তার সঙ্গে পুলিশ বক্সে আছেন ডিউটিতে থাকা আরো বেশ কয়েকজন।

দেখলাম তাদের প্রস্তুতি চলছিল ইফতারের পুলিশ বক্সের মাঝে একজন ইফতার মুড়ি মাখানোর জন্য শসা কাটতে ব্যস্ত তাদের মাঝের একজন সার্জেন্ট মুকুল শরবত বানাচ্ছিলেন তাকে জিজ্ঞাস করলাম ইফতার আসে কোথা থেকে আপনাদের জন্য জানালেন তেজগাঁও জোনের ডিসি ট্রাফিকের ব্যবস্থাপনায় ইফতার আসে ট্রাফিক পুলিশ বক্সে প্রতিদিন সেটা দিয়েই সবাই একসাথে ইফতার করেন তারা।

এরইমধ্যে মাগরিবের আজান দিয়ে দিল ট্রাফিক সার্জেন্ট শামশুযোহা হাতের ইশারায় বাস এগিয়ে যেতে বললেন রাস্তার পুলিশ বক্সের কাছে গিয়ে সারাদিনের রোজা শেষে ইফতারের পানি মুখ লাগালেন। দেখলাম ততক্ষণে আরেক জন এগিয়ে গিয়েছে রাস্তায় ডিউটি করবার জন্য। বক্স ইফরত একজনকে প্রশ্ন করলাম এভাবে পরিবার পরিজন ছেড়ে ইফতার করতে আপনাদের খারাপ লাগে না?

উত্তরে একটু মলীন হাসি দিয়ে বললেন ‘ডিউটি তো রাস্তায়। ইচ্ছা থাকলেও পরিবারের সঙ্গে ইফতার করা হয় না। ইফতার করতে হয় রাস্তায়। তাই ওসব নিয়ে খুব-বেশি আর ভাবি না। এভাবেই আসলে ইফতারি হয়ে থাকে আমাদের নির্বিঘ্ন ও নিরাপদ যাত্রাসেবা নিশ্চিত করা ট্রাফিক পুলিশ গুলোর।

রিপোর্ট- কে এম হোসেইন ও মো: আবিদ মইন খান
নতুনকিছু ডটকম

Share.

Leave A Reply

× six = 18