অর্ধলক্ষ মানুষের ৬৮ বছরের কষ্টের অবসান

0

একসঙ্গে জ্বালানো হলো ৬৮টি মোমবাতি। বাংলাদেশ ও ভারত সর্বত্রই বিলীন হয়ে গেলো ‘ছিটমহল’ নামের বন্দিশালাগুলো। মুক্তি মিললো সেইসব বন্দিশালায় দুঃসহ জীবন কাটানো প্রায় অর্ধলক্ষ মানুষের।

ছিটমহলের বাসিন্দারা ৬৮টি মোমবাতিকে তাদের ৬৮টি বছরের শোষণ-বঞ্চনার প্রতীক হিসেবে নিয়েছেন। তারা জানিয়েছেন, এ মোমগুলো জ্বলে-পুড়ে শেষ হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে শেষ হয়েছে নাগরিকত্বহীন দিনযাপনের ৬৮ বছরের গ্লানি।

সেই মাহেন্দ্রক্ষণে বাংলাদেশের ভেতরে থাকা ভারতের ১১১টি ছিটমহল চিরতরের জন্য হয়ে গেলো বাংলাদেশের ভূমি। সেখানে উড়বে বাংলাদেশের জাতীয় পতাকা। তেমনি ভারতের ভেতরে থাকা বাংলাদেশের ৫১টি ছিটমহল হয়ে গেলো ভারতের। দীর্ঘ ৬৮ বছরের নাগরিকত্বহীন, অবহেলিত, নির্যাতিত ও মানবিক বিপর্যয়ের চির অবসানের আনন্দে এবং এই প্রথম কোনো স্বাধীন দেশের নাগরিক হিসেবে আজ শনিবারের সূর্যের আলো উপভোগ করতে উভয় দেশের ছিটমহলের বাসিন্দারা উৎসবের আমেজে মেতে আছেন।

বাংলাদেশের ভেতরে থাকা ১১১টি ছিটমহলে শুক্রবার দিনব্যাপী ছিলো নানা কর্মসূচি। উৎসবের আমেজে নিজেদের ভাসিয়ে নিতে সকাল থেকেই ছিটমহলের ঘরে ঘরে চলেছে জাকজমকপূর্ণ নানা আয়োজন। এসব উৎসবে সামিল হয়ে তারা ভুলে যেতে চায় ৬৮টি বছরের বঞ্চনা, কষ্ট ও অসহাত্বের কথা।

Share.

Leave A Reply

+ two = eleven