চীনের সাতরঙা পাহাড়

0

‘বে নি আ স হ ক লা’  এই সাত রঙের সমষ্টির বর্ণিল আভাকেই রংধনু বা রামধনু বলে। বৃষ্টির ঠিক পর মুহূর্তেই দেখা মেলে রংধনুর । কত গল্প  আর উপন্যাসই না রয়েছে এই রংধনুকে কেন্দ্র করে। প্রত্যেক প্রকৃতি প্রেমিদের মনেই একটা বিশেষ জায়গা দখল করে আছে এই রংধনু।

তবে এই রংধনু বা বাহারি সাত রঙ কি শুধু আকাশেই বিদ্যমান? যদি বলা হয় মাটিতেও দেখা মিলবে সাত রঙের বাহার, তবে তা একবিন্দুও ভুল হবেনা।

বলছিলাম সাত রঙের পাহাড়ের কথা। চীনের উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলের জান্সু প্রদেশের ড্যাংজি জানজিয়া ল্যাওফারম জিওলজির ক্যানল পার্কে দেখা মিলবে এই সাত রঙা পাহাড়ের।

‘ড্যানজিয়া’ নামের রংধনু পাহাড়কে ২০১০ সালে বিশ্ব ঐতিহ্য হিসাবে তালিকাভুক্ত করে ইউনেস্কোর ওয়ার্ল্ড হেরিটেজ কমিটি।

ভূ-বিজ্ঞানীদের ধারণা প্রায় ২৪ মিলিয়ন বছর আগে সৃষ্টি হয়েছে এই বিশ্বয়কর সাতরঙা পাহাড়। টেকটনিক প্লেটের স্থানান্তরের ফলে পাহাড়ের উঁচু নিচু খাঁজগুলো তৈরি হলেও এই চোখঝলমলে সাত রঙের বাহার অন্য কারণে।

প্রকৃত পর্বতটি মূলত লাল রঙের বেলে পাথরের ক্ষয় হয়ে তৈরি হয়েছে। ভুস্থানটির শিলাস্তরের লেয়ারগুলোর রঙ বিভিন্ন হওয়ায়  পানি ও বাতাসের অভাবে তা একেক সময় একেক রঙ ধারণ করে। যখন যেখানে বৃষ্টিপাত হয়, বাহারি রঙের ছটা তখন সেখানে আরও কয়েকগুন বেড়ে যায়।

Share.

Leave A Reply

twelve − four =