গণতান্ত্রিক দেশ থেকে মানুষকে চলে যেতে হয় কেন?

0

বিশ্ব আদিবাসী দিবস আজ। প্রতিবছরের ন্যায় এবারও বাংলাদেশে পালিত হচ্ছে এ দিবস। এ উপলক্ষে (৮ জুলাই) বুধবার সিরড্যাপ মিলনায়তনে আয়োজন করা হয়েছে ‘আদিবাসীসহ প্রান্তিক মানুষের ভূমি থেকে উচ্ছেদ এবং তাদের মানবাধিকার’ শীর্ষক সেমিনার।

সেমিনারে সভাপতিত্ব করেন মানবাধিকার নেত্রী সুলতানা কামাল। প্রধান অতিথি ছিলেন সংসদ সদস্য ফজলে হোসেন বাদশা। প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন বাংলাদেশ আদিবাসী ফোরামের সাধারণ সম্পাদক সঞ্জীব দ্রং।

প্যানেল আলোচক ছিলেন মানবাধিকার কর্মী খুশী কবির, চাকমা রাণী ও উপদেস্টা ইয়েন ইয়েন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাস বিভাগের অধ্যাপক ড. মেজবাহ কামাল,  ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের অধ্যাপক রোবায়েত ফেরদৌস।

সেমিনারে সাংসদ ফজলে হোসেন বাদশা বলেন, সংখ্যালঘু এবং ক্ষুদ্র জাতিগোষ্ঠীর মানুষের ভূমি দখল রোধ, নিরাপত্তার জন্য এবং তাদের দেশান্তর বন্ধ করতে বিশেষ আইন প্রয়োজন। আদিবাসীদের দাবি পূরণে রাজনৈতিক সদিচ্ছার বেশি দরকার।

সুলতানা কামাল দায়িত্বশীল মহলের কাছে প্রশ্ন রাখেন, একটি গণতান্ত্রিক দেশ থেকে মানুষকে চলে যেতে হয় কেন? এর পেছনে কারা রয়েছে? সুতরাং সরকারের উচিৎ এ সমস্যার সমাধান করা।

অনুষ্ঠানে বক্তারা আদিবাসীসহ প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর মৌলিক অধিকারের দাবি জানান। বলেন, এ দেশ পঞ্চাশটি জাতি গোষ্ঠীর, মাতৃভাষা বাংলাসহ ৩৫ টি উপ-ভাষা ও বহুধর্মীয় জনগোষ্ঠীর দেশ। সরকারের উচিৎ আদিবাসীদের আদিবাসী হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়া এবং তাদের দাবি পূরণ করা।

এ দিবস উপলক্ষে জাতিসংঘের এক বাণীতে বলা হয়েছে, বিশ্বের ৭০টি দেশে ৩০ কোটি আদিবাসীর বসবাস। এর অধিকাংশ এখনো শিক্ষা, স্বাস্থ্য, অর্থনৈতিক ক্ষেত্রে বৈষম্যের শিকার। অনেক দেশে আদিবাসীরা স্বীকৃতিই পায়নি। এ অবহেলিত জনগোষ্ঠীর পাশে সবার দাড়ানো নৈতিক দায়িত্ব।

Share.

Leave A Reply

twenty + = twenty eight