‘খুব বেশি ভালো লাগে বাইসাইকেল চালাতে’

0

ছোটবেলা থেকেই ‘বুড়ী’ নামেই বেড়ে ওঠা জুথীর। বাবা মায়ের ছোট মেয়ে হবার কারনেই নাকি বুড়ি বলে ডাকা হতো বর্তমানের একজন নব্য স্থপতি নাদিয়া পারভীন জুথীকে। দুই বোন বীথি ও তিথির নামানুসারেই ছোট মেয়ের নাম ‘জুথি’ রেখেছিলেন বেলায়েত হোসেন এবং শামসুর নাহার দম্পতী। স্থাপত্য বিভাগে পড়াশোনা করলেও শত ব্যস্ততায় একজন তুখোড় বিতার্কিক জুথি। পড়াশোনা, বিতর্ক, পরিবার সব মিলিয়ে ব্যস্ত জুথি সময় দিয়েছেন নতুন কিছু ডট কমের প্রতিবেদক সুপ্রিয় সিকদারকে।

কেমন আছেন, কি করছেন জিজ্ঞাসা করতেই বরিশালের মেয়ে জুথির স্রেফ উত্তর ভাই, সেলাই করি। জানিনা কাজটি আমার সাথে যায় কিনা। তবে বাধ্য মেয়ের মতো সেলাই করছি আপাতত। আর সব মিলিয়ে ভালোই আছি। তবে পড়াশোনার চাপটা একটু বেশী।

নতুন কিছুঃ কোথায় পড়ছেন ?
জুথিঃ আমি স্টেট ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশের স্থাপত্য বিভাগে পড়াশোনা করছি। থিসিস চলছে। এ মাসেই থিসিস জুরী, তাই পড়াশোনা নিয়ে খুব বেশী ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছি।

নতুন কিছুঃ এসএসসি এবং এইচএসসি শেষ করেছেন কোথা থেকে ?
জুথিঃ এসএসসি শেষ করেছি পিরোজপুরের হাজী আব্দুল গনি মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে আর এইচএসসি শেষ করেছি ঢাকার ক্যাম্ব্রিয়ান কলেজ থেকে। অষ্টম শ্রেণিতে জুনিয়র স্কলারশিপ পরীক্ষায় ট্যালেন্টপুলে বৃত্তি, ক্লাস নাইনে নাজিরপুর উপজেলায় আমি শ্রেষ্ঠ ছাত্রী নির্বাচিত হয়েছিলাম। এসএসসি আর এইচএসসি দুটোতেই এ প্লাস ছিলো।
নতুন কিছুঃ পড়াশোনার জন্য স্থাপত্য বিভাগকেই কেন বেছে নিলেন ?
জুথিঃ বাবা ইঞ্জিনিয়ার। বাবার ইচ্ছে ছিল, সাথে আমার নিজেরও খুব ইচ্ছে ছিল। ছোটবেলা থেকেই বিভিন্ন ক্রাফটের উপর আমার ভালোলাগা ছিলও অন্যরকম। বলতে গেলে আমার মনের মিলের কারণেই স্থাপত্য বিভাগে পড়াশোনা করা।

নতুন কিছুঃ সম্প্রতি বিয়ে করেছেন, বিবাহিত জীবন কি পড়াশোনার জন্য বাঁধার কারণ হচ্ছে ?
জুথিঃ আমার কাছে মনে হয়েছে বিয়ে করার ফলে আমি পড়াশোনা করার নতুন উদ্যম পাচ্ছি। আর আমার বিয়েটাও লাভ ম্যারেজ। যদিও দুই পরিবারের সম্মতিতেই বিয়ে করেছি। আট বছর প্রেমের পরে বিয়ে। আমরা দুজন দুজনকেই খুব ভালো করে জানি এবং বুঝি। সেজন্য সমস্যা হয়না বরং আরও আমি পড়াশোনা বাদে ফেসবুক চালাই দেখে বেশ ক্ষিপ্ত হন আমার স্বামী।

নতুন কিছুঃ বিতর্কের শুরুটা যদি একটু বলতেন ?
জুথিঃ আমার বিতর্ক শুরুই হয়েছে বন্ধু সাহস মোস্তাফিজের হাতে ধরে। আসলে সাহস না থাকলে আমি কখনোই হয়তো বিতর্কের দিকে আসতাম না। একবার শুরু করার পর আর ফিরতে পারিনি। এখন বিতার্কিক হিসেবে মানুষ চিনে, জানে এর সম্পূর্ণটাই হয়েছে বন্ধু সাহসের জন্য। আমার খুব ভালো একজন বন্ধু সাহস, তবে মানুষটিকে খুব ভয় পাই।

নতুন কিছুঃ সম্প্রতি আপনি এসইউবিডিএস’র(স্টেট ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ ডিবেটিং সোসাইটি) সভাপতি নির্বাচিত হয়েছেন, কেমন লাগছে ?
জুথিঃ নতুন দায়িত্ব, কাজ করার সময় খুব কম। তবে কাজ করার ইচ্ছে অনেক বেশী। চাই আমার হাত ধরে এসইউবিডিএস একদিন আন্তর্জাতিক পর্যায়ে বিতর্ক করে সুনাম অর্জন করবে। আমি আগামী ১ বছরের মধ্যে এসইউবিডিএস’র পক্ষ থেকে একটি জাতীয় পর্যায়ের একটি বিতর্ক অনুষ্ঠান করতে চাই। আর পাঠচক্র নামে একটি বই পড়ার আসর প্রতি সপ্তাহে বা মাসে আয়োজন করবো যেখানে এসইউবিডিএস’র সদস্যা ছাড়াও অন্যান্য ছাত্র-ছাত্রীরা অংশগ্রহন করে বিভিন্ন বই পড়বে এবং বই নিয়ে আলোচনা করবে।

নতুন কিছুঃ বিতর্কে আপনার উল্লেখযোগ্য অর্জন কি কি ?
জুথিঃ অনেক অনেক অর্জন। ক্রেস্টের চেয়েও বেশী ভালোবাসা পেয়েছি মানুষের। মানুষ আমার বিতর্ক শুনতে ভালোবাসে। ২০১৬ সালে অনুষ্ঠিত ‘সি ডায়ালগ’ এ চ্যাম্পিয়ন, এটিএন বাংলার ডিবেট ফর ডেমোক্রেসিতে দলসহ রানার্সআপ হওয়া আমার অর্জনের তালিকায় খুব বেশি উল্লেখযোগ্য।

নতুন কিছুঃ অবসরে কি করেন ?
জুথিঃ আমার জীবনে অবসর নেই বললেই চলে। তবে আমি ছোটবেলা থেকেই নাচ করতাম। এখন আর নাচ করা হয়না। তবে অবসর পেলেই বাইসাইকেল চালাই। খুব বেশি ভালো লাগে বাইসাইকেল চালাতে।

নতুন কিছুঃ আপনার প্রিয় রঙ ?
জুথিঃ প্রিয় রঙ সাদা। আমার কাছে নিজেকে খুব বেশি উদার মনের মানুষ মনে হয়। সেজন্যই সাদাকে বেশী পছন্দ করি।

নতুন কিছুঃ আপনার প্রিয় মানুষ ?
জুথিঃ সবচেয়ে বেশি ভালোবাসি বাবাকে। আর এখন প্রিয় মানুষ বলতে বুঝি পলাশ। কামরুল হাসান পলাশ আমার স্বামী। বলা যেতে পারে আমি এখন ‘জামাই পাগল বৌ’।

নতুন কিছুঃ আপনার প্রিয় খাবার ?
জুথিঃ আমি রান্না করতে খুব বেশি পছন্দ করি। তবে রান্নায় লবণের ব্যাপারটা ঠিক বুঝি না, মানে এটা আমার আউট অফ কন্ট্রোল ! খেতে খুব পছন্দ করি না। প্রিয় খাবার চিকেন ফ্রাই আর মিষ্টি।

নতুন কিছুঃ ভবিষ্যতে নিজেকে কোন অবস্থানে দেখতে চান ?
জুথিঃ আমি এমন এক অবস্থানের স্বপ্ন দেখি যেখানে থেকে আমি সারাবিশ্বের কাছে বাংলাদেশকে তুলে ধরতে পারি। ইচ্ছে আছে একটি মাল্টি ন্যাশনাল কোম্পানিতে চাকরি করা।

নতুন কিছুঃ খুব ভালো লাগলো আপনার সাথে কথা বলে। ভালো থাকবেন।
জুথিঃ আপনিও ভালো থাকবেন, দোয়া করবেন আমার ও আমার নতুন পরিবারের জন্য।

Share.

Leave A Reply

eleven + = twenty