কে হাসবে শেষ হাসি, দিদিয়ের দেশঁ নাকি জলাতকো দালিচ

0

নতন কিছু ডেস্ক।। 

অপেক্ষা আর কয়েক ঘণ্টার। এক মাসের লড়াই শেষে অঘটনের বিশ্বকাপের ফাইনালে আজ রাতে মুখোমুখি হবে ফ্রান্স ও ক্রোয়েশিয়া।  সময় রাত ৮.০০ মিনিটে মস্কোর লুঝনিকি স্টেডিয়ামে শুরু হবে শেষ ‘যুদ্ধ।’ আর তার আগে দু’দলই বেশ সাবধানী। এতটুকু ভুলচুক হলেই হাতছাড়া হতে পারে স্বপ্ন ছোঁয়ার সাধ। তাই শিষ্যদের সতর্ক করছেন ফ্রান্স ও ক্রোয়েশিয়া দু’পক্ষের কোচই।

ম্যাচের আগের দিন খেলোয়াড়দের সতর্ক করেছেন ফ্রান্সের কোচ দিদিয়ের দেশঁ। জানিয়েছেন, ক্রোয়েশিয়াকে হারাতে গেলে শান্ত, আত্মবিশ্বাসী ও মনোযোগী হতে হবে। দেশঁ বলেন, এরকম ম্যাচ খেলতে পারা ভীষণ আনন্দ ও সম্মানের। একজন পেশাদার ফুটবলারের জন্য বিশ্বকাপ ফুটবলের ফাইনাল খেলতে পারার থেকে গর্বের আর কিছু নেই। আমরা যথা সম্ভব দলকে জয়ের জন্য প্রস্তুত করেছি। আমি ছেলেদের শান্ত, আত্মবিশ্বাসী ও মনোযোগী থাকতে পরামর্শ দিয়েছি।’

দেশঁ মেনে নিয়েছেন, ক্রোয়েশিয়ার থেকে তাঁর দলের খেলোয়াড়দের অভিজ্ঞতা কম। কারণ হিসাবে তিনি জানান, ২০১৬-য় ইউরো ফাইনালে পর্তুগালের কাছে হারের পর দলে ১৪ জন নতুন মুখ নিয়েছে ফ্রান্স। ফলে এবারের ফ্রান্স দল অপেক্ষাকৃত নবীন। তবে দেশঁর দাবি, অভিজ্ঞতায় পিছিয়ে থাকলেও মানে তাঁরা যে কাউকে টেক্কা দিতে পারেন।

১৯৯৮ সালে ফ্রান্সের প্রথম বিশ্বকাপ জয়ী দলের অধিনায়ক ছিলেন দেশঁ। রবিবার মস্কোর লুঝনিকি স্টেডিয়ামে বাজিমাত করতে পারলে ব্রাজিলের মারিও জাগালো ও জার্মানির ফ্রাঞ্জ বেকেনবাওয়ারের পর তৃতীয় ব্যক্তি হিসাবে খেলোয়াড় ও কোচ, দুই ভূমিকাতেই বিশ্বকাপ জয়ের নজির গড়বেন তিনি।

ওদিকে ফাইনাল নিয়ে সাবধানী ক্রোয়েশিয়ার কোচ জ্লাতকো দালিচ। এই প্রথম বিশ্বকাপ ফাইনালের মঞ্চে নামছে আদ্রিয়াতিক সাগরপারের দেশটি। জ়াগ্রেব যখন ফুটবল জ্বরে কাবু তখন ভোল্গার তীরে ঘুঁটি সাজাচ্ছেন কোচ দালিচ। তবে সেই চাপের ছিটেফোঁটা নেই তাঁর চোখেমুখে।

নক আউট পর্বের তিনটি ম্যাচই ক্রোয়েশিয়া ১২০ মিনিট খেললেও দলে কোনও চোট-আঘাত নেই বলে দাবি কোচের। তাঁর কথায়, ‘আমার ছেলেরা জানে বিশ্বকাপ ফাইনাল মানে কী। আর চোট আঘাত থাকলে তারা আমায় নিশ্চই জানাত।’ ছেলেদের বিশ্রাম দিতে শনিবার দলের ৫ খেলোয়াড়কে অনুশীলন করাননি দালিচ। ফাইনালের আগে ফ্রান্সের থেকে ১ দিন কম বিশ্রাম পেয়েছে ক্রোয়েশিয়া। কোচ বলেন, ‘এই পর্যায়ে আর অনুশীলন করার কিছু নেই। বরং দরকার বিশ্রাম। তাই কাউকে অনুশীলনের জন্য জোর করিনি।’ তবে দলে যে ছোটখাটো চোট সমস্যা রয়েছে তা মেনে নিয়েছেন তিনি।

Share.

Leave A Reply

four × = 12