ঐতিহাসিক গোপীনাথ মন্দির

0

আহসান হাবীব-

বাংলাদেশের উত্তরাঞ্চলের একটি ক্ষুদ্র জেলা জয়পুরহাট। এই জেলার আক্কেলপুর উপজেলার পূর্বদিকে গোপীনাথ মন্দির অবস্থিত। ৯০০ বৎছর পূর্বে নন্দিনী প্রিয়া এসে বর্তমান জয়পুরহাট জেলার গোপীনাথপুর গ্রামের ভগ্নপ্রায় এক মন্দিরে ভগবান শ্রীকৃষনের একটি ধাতব বিগ্রহ প্রাপ্ত হন।

নির্জন সেই মন্দিরে বসে দিন-রাত ‘হা কৃষ্ণ প্রাণবল্লভ’ বলে চোখের জলে বুক ভাসাতে থাকলে। সপ্তম দিনে দয়াময় স্বপ্নাদেশে আদেশ করেন, আমার প্রতিমূর্তি ও শ্রীরাধার প্রতিমূর্তি আমি তোমার জন্য বিশবকর্মা দ্বারা নির্মাণ করে মন্দিরের পাশের পুকুরের জলে নিমগ্ন করে রেখেছি।

তুমি সেই প্রতিমূর্তিগুলো এনে এই মন্দিরে স্থাপন কর। আত:পর নন্দিনী প্রিয়া মূর্তিগুলো উদ্ধার করে গোপীনাথপুর গ্রামের মন্দিরে স্থাপন করেন এবং অত্র গ্রামের নামের সাথে মিল রেখে গোপীনাথ মন্দির নামকরন করেন। তখনকার সময়ে মন্দিরটি নির্মাণের দায়িত্ব পান লক্ষ্মৌর মিস্ত্রি এবং মন্দিরটির নকশা প্রস্তত করেন একজন প্রখ্যাত প্রকৌশলী বারানশীর। বর্তমান মন্দিরটির উচ্চতা আনুমানিক ৯০ ফিট।

বর্তমানে মন্দিরের প্রধান গেটের উপরিভাগে বিশাল আকৃতির সিংহ মূর্তি ও এর দুই পাশে দুইটি ডানা মেলা মায়াবিনী পরীসহ অন্যান্য দেব দেবতার প্রতিমূর্তির কারুকার্য রয়েছে। মন্দিরটির বিশেষ দিক হলো লৌহ কাঠামোর উপর গভির ঢালাই দিয়ে নির্মিত। প্রতিদিন বিভিন্ন ধর্মের শত শত দর্শনাথীরা এই মন্দিরের সৌন্দর্য উপভোগ করতে ছুটে আসেন।

Share.

Leave A Reply

nine ÷ = three