এসইউবিতে ‘বাংলাদেশ ইজ এ ন্যাশন স্টেট’ শীর্ষক সেমিনার অনুষ্ঠিত

0

ধর্ম ভিত্তিক রাষ্ট্র হলে তার পরিণাম ভালো হয় না বলে মন্তব্য করেছেন অধ্যাপক ড. রতন খাসনবীশ। সোমবার (১৩ আগস্ট) ঢাকার ধানমণ্ডিতে অবস্থিত স্টেট ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ (এসইউবি) এর ‘সেন্টার ফর ক্রিটিক্যাল থিংকিং’ এর আয়োজনে ‘বাংলাদেশ ইজ এ ন্যাশন স্টেট’ শীর্ষক সেমিনারে এ মন্তব্য করেন।

সেমিনারে প্রধান আলোচক ছিলেন ভারতের কোলকাতার ‘অ্যাডামাস ইউনিভার্সিটির স্কুল অব ইকোনমিক্স অ্যান্ড কমার্স’ এর ডীন অধ্যাপক ড. রতন খাসনবীশ। আলোচক ছিলেন এসইউবি’র প্রো-ভিসি অধ্যাপক ড. আনোয়ারুল কবীর, জার্নালিজম, কমিউনিকেশন অ্যান্ড মিডিয়া স্টাডিজ বিভাগ(জেসিএমএস) এর উপদেষ্টা অধ্যাপক রোবায়েত ফেরদৌস।

অধ্যাপক ড. রতন খাসনবীশ আরও বলেন, রাষ্ট্রে বহু জাতির বসবাসের সুযোগ করা বড় কথা নয়, বরং তাদের ধরে রাখাই বড় কথা। বাংলাদেশ স্বাধীন হওয়ার সময় যতগুলো আদিবাসী ও প্রান্তিক জনগোষ্ঠী নিয়ে যাত্রা শুরু করে, আজ ৪৭ বছরে অনেক জাতিই বিলীন হয়ে গেছে। সুতরাং, রাষ্ট্রের দায়িত্ব হচ্ছে সকলের জন্য সমান সুযোগ সুবিধা নিশ্চিত করা।

তিনি আরও বলেন, মোহাম্মদ আলী জিন্নাহ ধর্মের দোহাই দিয়ে ভারতের তামিলকেও আলাদা রাষ্ট্র গঠন করতে চেয়েছিলেন, কিন্তু তা পারেন নি। বরং তামিলের মানুষ তাকে বিতাড়িত করেছিলেন।

অধ্যাপক ড. আনোয়ারুল কবীর বলেন, মোহাম্মদ আলী জিন্নাহ নিজে উর্দু ভাষা জানতেন না, এমনকি নামাজের নিয়ম-কানুন ও সুরাও জানতেন না।

অধ্যাপক রোবায়েত ফেরদৌস বলেন, তাঁরা চান বাংলাদেশ কেবল জাতি রাষ্ট্রের নয়, বরং বহু ভাষার, বহু ধর্মের ও বহু সংস্কৃতির মানুষ এক সাথে নিরাপদে বসবাস করার জায়গা হোক। তিনি বহুত্ববাদে বিশ্বাসী বলেও দাবি করেন।

সেমিনারে জেসিএমএস’ বিভাগের সিনিয়র লেকচারার কাজী আনিছ এর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানের শুরুতে দেশের গান পরিবেশন করেন লেকচারার সাহস মোস্তাফিজ এবং প্রধান অতিথির পরিচয় তুলে ধরেন বিভাগটির খণ্ডকালীন শিক্ষক আহমেদ জাভেদ রনি।

Share.

Leave A Reply

84 ÷ = fourteen