আলোচিত নয়, আলোকিত মানুষ হতে হবে: সেলিম জাহান

0

এখন এমন সময় চলছে, অনেকেই আলোচনায় আসতে চায়। আলোচিত হতে চায়। আসলে আলোচিত নয়, আলোকিত মানুষ হতে হবে। উন্নয়নের জন্যই আলোকিত মানুষ হতে হবে।

বৃহস্পতিবার (১৫ ফেব্রুয়ারি) বেলা ১১টার দিকে রাজধানীর কলাবাগানের স্টেট ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশের (এসইউবি) জার্নালিজম, কমিউনিকেশন অ্যান্ড মিডিয়া স্টাডিজ (জেসিএমএস) বিভাগের উদ্যোগে সেন্টার ফর ক্রিটিকাল থিংকিং এর আয়োজনে ‘মানব উন্নয়ন: বাংলাদেশ প্রেক্ষিত’ শীর্ষক এক সেমিনারে বিশিষ্ট অর্থনীতিবিদ ও ইউএনডিপি’র পরিচালক ড. সেলিম জাহান এসব কথা বলেন। রাজধানীর কলাবাগানে ইয়াকুব সেন্টারে এসইউবি’র অডিটোরিয়াম ‘স্কলার্স ইন’-এ সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়।

সেমিনারে সভাপতিত্ব করেন বিশিষ্ট কলামিস্ট ও সাংবাদিক সৈয়দ আবুল মকসুদ। উপস্থিত ছিলেন এসইউবি’র ট্রাস্টি বোর্ডের প্রেসিডেন্ট ডা. এএম শামীম।

বক্তব্যে সেলিম জাহান বলেন, এককভাবে উন্নয়ন সম্ভব নয়। বরং সব ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানের সমবেত প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে একটি দেশের উন্নয়ন সম্ভব। আর মানব উন্নয়নের জন্য দরকার স্বাধীনতা, স্বক্ষমতা ও সুযোগ সৃষ্টি। মানুষের বাছাই ও চয়নের স্বাধীনতা ও স্বক্ষমতা থাকতে হবে। শিক্ষা, প্রশিক্ষণ, কর্মসংস্থানসহ বিভিন্ন বিষয়ের মাধ্যমে স্বক্ষমতা বৃদ্ধি ও সুযোগ সৃষ্টি করতে হবে। আবার নিজের সুযোগ সৃষ্টি করার মাধ্যমে অন্যের সুযোগ নষ্ট যাবে না-সেদিকেও খেয়াল রাখতে হবে। অন্যকেও জায়গা করে দিতে হবে।

সেলিম জাহান বলেন, উন্নয়নের জন্য বিভিন্ন শর্ত ও পর্যায় রয়েছে। স্বক্ষমতা ও সুযোগ সৃষ্টি এবং এদের মধ্যকার ভারসাম্য রক্ষাসহ বিভিন্ন বিষয় উন্নয়নের ধারণার সঙ্গে সম্পৃক্ত। এছাড়া গণতান্ত্রিক মন ও পরিবেশও একটি দেশের উন্নয়নের জন্য বড় ভূমিকা রাখে।
সেলিম জাহান বলেন, উন্নয়ন কোনো স্বল্প দৈর্ঘ্যরে দৌড় নয়। উন্নয়ন হঠাৎ আলোর ঝলকানিও নয়। উন্নয়ন একটি প্রক্রিয়া। এই প্রক্রিয়ার মাধ্যমে বজায়যোগ্য উন্নয়ন করার প্রচেষ্টা করতে হবে।

সেলিম জাহান বলেন, উন্নয়নের জন্য শুধু পরিমাণগত দিক নয়, বরং বস্তুগত ও গুণগত মানের দিকেও নজর দিতে হবে। সামাজিক ও বৈশ্বিক অস্থিরতাকে কাটিয়ে উন্নয়ন চিন্তা ও তার বাস্তবায়ন করতে হবে। অসম পৃথিবীতে সমতা আনতে হবে। নারী ও পূরুষের সম অধিকারসহ দেশ ও বিশ্বময় সমতা বিধান করতে হবে। তিনি বলেন, এখন এমন সময় চলছে যে, অনেকেই আলোচিত হতে চায়। আসলে আলোচিত মানুষ নয়, আলোকিত মানুষ হতে হবে।

সেলিম জাহান বলেন, মানব উন্নয়নের ক্ষেত্রে তিনটি প্রশ্ন মনে রাখতে হবে-কিসের উন্নয়ন, কার জন্য উন্নয়ন ও কী দিয়ে উন্নয়ন? উত্তর হবে, মানুষের জন্য মানুষের দ্বারা মানুষের উন্নয়ন। এই যদি হয় পরিকল্পনা, তাহলে প্রকৃত উন্নয়ন সম্ভব।

স্বাগত বক্তব্যে ডা. এএম শামীম বলেন, বাংলাদেশের এত জনসংখ্যাকে বোঝা না ভেবে শক্তি ভাবা প্রয়োজন। সবাইকে জনশক্তিতে রূপান্তর করতে হবে। আর সবার সম্মিলিত প্রচেষ্টার মাধ্যমে দেশের উন্নয়ন সম্ভব। নিজেকে উন্নয়নের পাশাপাশি সবাই দেশের জন্য, দেশের মানুষের জন্য, পরিবারের জন্য কাজ করবে-এটাই প্রত্যাশা ও বাস্তবায়ন করতে হবে।

সভাপতির বক্তব্যে সৈয়দ আবুল মকসুদ বলেন, মানব উন্নয়ন মানে শহরে বড় বড় দালান নির্মাণ নয়, বরং মানুষের শঙ্কাহীন জীবনযাপনই উন্নয়ন। মানব উন্নয়নের জন্য দক্ষ, দূরদৃষ্টিসম্পন্ন ও মানবিক মূল্যবোধসম্পন্ন হতে হবে।

অনুষ্ঠানে এসইউবি’র উপাচার্য প্রফেসর ড. সাইদ সালাম, প্রো-উপাচার্য আনোয়ারুল কবীর, এসইউবি’র উপদেষ্টা প্রফেসর এস এম ফায়েজ, ট্রেজারার মেজর জেনারেল (অব.) এম শাহজাহান, স্কুল অব সায়েন্স এন্ড টেকনোলজি ফ্যাকাল্টির ডিন ও আর্টিটেকচার বিভাগের প্রফেসর শামসুল ওয়ারেস, বিজনেস স্টাডিজ বিভাগের উপদেষ্টা প্রফেসর মুহাব্বত আলী ও প্রধান মেজর জেনারেল (অব.) কামরুজ্জামান, পাবলিক হেলথ বিভাগের প্রধান, এসইউবি’র প্রক্টর ও ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার প্রফেসর নওজিয়া ইয়াসমিন, ইনভায়রনমেন্টাল সায়েন্স বিভাগের প্রধান সহযোগী অধ্যাপক খান ফেরদৌসুর রহমান, লেখক ও গবেষক মোস্তফা চৌধুরী প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

সেমিনারের শুরুতে ভাষা নিয়ে গান পরিবেশন করেন এসইউবি’র জেসিএমএস বিভাগের লেকচারার সাহস মোস্তাফিজ। সেমিনার শেষে উপস্থিত শ্রোতারা উন্নয়নসহ বিভিন্ন বিষয়ে প্রশ্ন করেন। অর্থনীতিবিদ সেলিম জামান প্রশ্নের উত্তর দেন।

সেমিনার সঞ্চালনা করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের অধ্যাপক , এসইউবি’র জেসিএমএস বিভাগের উপদেষ্টা ও সেন্টার ফর ক্রিটিকাল থিংকিং এর উদ্যোক্তা প্রফেসর রোবায়েত ফেরদৌস।

Share.

Leave A Reply

seventy two ÷ eighteen =