‘আদিবাসীদের সমস্ত অধিকার নিশ্চিতকরণে আমরা পাশে থাকবো’

0

সুমাইয়া জামান-

দলিত ও সমতলের আদিবাসীদের সাংবিধানিক অধিকার নিশ্চিত করার লক্ষে  ‘জাতীয় কনভেনশন’ অনুষ্ঠিত হয়েছে। গত ১লা নভেম্বর মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘরে অনুষ্ঠিত এই কনভেনশনে দলিত ও সমতলের আদিবাসীদের সম-অধিকার নিশ্চিত করার লক্ষে সংবিধানের একটি খসড়াপত্র প্রণয়ন করা হয়েছে।

অনুষ্ঠানটি মোট পাঁচটি পর্যায়ে সম্পন্ন হয়। উদ্বোধনী অধিবেশন, সমান্তরাল অধিবেশন ১,সমান্তরাল অধিবেশন ২, সমান্তরাল অধিবেশন ৩ এবং সমাপনী অধিবেশন। অনুষ্ঠানের উদ্বোধনী অধিবেশনে সুলতানা কামাল এর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর আন্তর্জাতিক বিষয়ক উপদেষ্টা অধ্যাপক ড. গওহর রিজভী।

উদ্বোধনী অধিবেশনের শুরুতে নওগাঁ শিশু বিকাশ কেন্দ্রের শিশুরা আদিবাসীদের নিপীড়ন নিয়ে একটি নাটিকা পরিবেশন করে। সেখানে তারা ফুটিয়ে তোলে কিভাবে আদিবাসীরা জন্মের পর থেকেই নির্যাতন, তাচ্ছিল্য ও অবজ্ঞার স্বীকার হয়।

উদ্বোধনী অধিবেশনে প্রধান অতিথি  ড. গওহর রিজভী বলেন, ‘বাংলাদেশের মত উন্নয়নশীল দেশে সব মানুষ যখন একসাথে এগিয়ে যাচ্ছে, তখন আদিবাসীরাও পিছিয়ে থাকবে না। এগিয়ে যাওয়ার ক্ষেত্রে আমরা সবসময়ই তাদের পাশে আছি এবং থাকবো।’

এই উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত আদিবাসী ও দলিত প্রতিনিধিরা তাদের নিপীড়নের কথা বলেন। কিভাবে তারা জীবনের প্রতিটি ক্ষেত্রে নির্যাতিত হচ্ছেন, তা সবার সামনে তুলে ধরেন। কিভাবে তারা বিভিন্ন সরকারি ও বেসরকারি সংস্থার সাহায্যে নিজেদের অবস্থার পরিবর্তনের চেষ্টা করছেন তারও উল্লেখ করেন এবং সেই সাথে সাংবিধানিক ভাবে তাদের অনেক অধিকার ইতোমধ্যে অন্তর্ভুক্ত হলেও তারা তার সুষ্ঠু প্রয়োগ পাচ্ছেন না বলে জানান।

সমান্তরাল অধিবেশনের বিভিন্ন পর্যায়ে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ সুপ্রিমকোর্ট এর এডভোকেট ব্যারিষ্টার সারা হোসেন,বাংলাদেশ আরআইবি এর নির্বাহী পরিচালক ড. শামসুল আলম সহ আরও অনেকে।

সমাপনী অধিবেশনে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মাননীয় সাংস্কৃতিক বিষয়ক মন্ত্রী জনাব আসাদুজ্জামান নূর। তাঁর বক্তৃতায় তিনি বলেন,” আদিবাসীদের সমস্ত অধিকার নিশ্চিতকরণে আমরা সবসময় পাশে থাকবো। আপনারা নিজেদের অধিকার নিজেরা আদায় করে নিবেন, আমরা আপনাদের সাথে থাকবো।”

অনুষ্ঠানের শেষ পর্যায়ে সংবিধানের খসড়াপত্রটিতে দলিতদের মতানুযায়ী কিছু সংযোজন এর আবেদন গ্রহণ করা হয়, এবং বিবেচনার মাধ্যমে তা প্রণয়নের অঙ্গীকারও দেওয়া হয়।

সমাপনী অধিবেশনের সঞ্চালনায় ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাংবাদিকতা বিভাগের অধ্যাপক এবং স্টেট ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ এর জার্নালিজম, কমিউনিকেশন এন্ড মিডিয়া স্টাডিজ এর উপদেষ্টা অধ্যাপক রোবায়েদ ফেরদৌস।

Share.

Leave A Reply

thirty two + = thirty nine