আদর্শ রাষ্ট্র গঠনে অর্ধ পাগল কবিদের নির্বাসন দাও : প্লেটো

0

খ্রিস্টপূর্ব ৪২৮ অব্দে গ্রিসের এথেন্সে প্লেটোর জন্ম। তিনি মহামতি শিক্ষক সক্রেটিসের একনিষ্ঠ অনুসারী ছাত্র ছিলেন। ধারণা করা হয় সক্রেটিসের জীবন ও কর্ম সম্পর্কে দুই তৃতীয়াংশ তিনিই লিখেছিলেন। আর প্লেটোই সর্বপ্রথম স্কুল প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে একাডেমিক শিক্ষার ধারণা দেন।

শিক্ষার গুরুত্ব সম্পর্ক তিনি বলেছিলেন, শিক্ষা ব্যতীত ব্যক্তির কোনো উন্নতি বা অগ্রগতি সাধিত হয় না। শিক্ষা ভিন্ন ব্যক্তির আত্নশাসন শক্তিও থাকে না। আর সক্রেটিস বলেছেন, শিক্ষার উদ্দেশ্য মিথ্যার বিলুপ্তি ও সত্যের আবিস্কার।

সাম্যবাদের প্রবক্তা ছিলেন প্লেটো। তিনি সাম্যবাদ প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে বলেছিলেন আদর্শ রাষ্ট্র গঠনের কথা। আর আদর্শ রাষ্ট্র গঠন করতে কয়েকটি নীতি নৈতিকতার কথাও বলেছিলেন তিনি। যার প্রথমেই ছিলো, আদর্শ রাষ্ট্র গঠনে অর্ধ পাগল কবিদের নির্বাসন দাও। কারণ, এরা খায় আর ঝিমায় এবং কল্পনার রাজ্যে বিচরণ করে। আর সাম্যবাদের প্রধান বক্তব্যই হচ্ছে সকল মানুষকে সমানভাবে কর্মঠ করা। কেই খাবে কেউ খাবে না, তা হবে না-তা হবে না।

একই চিন্তা ধারায় কাজ করেছিলেন সক্রেটিসও। বলা হয়, সক্রেটিস যে চিন্তার জন্ম দিয়েছিলেন, আর প্লেটো তার বাস্তবায়ন করেছিলেন। প্লেটোর অর্ধপাগল কবিদের সম্পর্কে ধারণার অনেকগুলো কারণ থাকতে পারে। তারমধ্যে, উল্লেখযোগ্য হতে পারে, এদের মদ, গাঁজা, আফিম, জীবন সম্পর্কে বিরূপ ধারণা, ঘর ত্যাগ, সংসার ত্যাগ ইত্যাদি। প্লেটো মনে করতেন, এদের মাথা থেকে কখনো আদর্শ রাষ্ট্রের সাম্যবাদী চিন্তার উদ্ভব হবে না। তাই তিনি বলেছিলেন, অর্ধ পাগল কবিদের নির্বাসন দাও।

Share.

Leave A Reply

six + four =