‘আগুন চাবুক’ নাটকের দ্বিতীয় মঞ্চায়নে অধ্যাপক রোবায়েত ফেরদৌস

0

বাইরে টিপ টিপ বৃষ্টি। শান্ত পরিবেশ। কিন্তু ভেতরে অতিথি ও দর্শকদের গুন গুন শব্দ ও নাটকের বাঁশির সুরে যেন ভেতরেও এক সুমধুর আবহ তৈরি হয়েছে। নাটকের মঞ্চায়নের পরিবেশ দেখে মনে হয়েছে ভেতরে তিল মাত্র ঠাই নেই। এমনি এক দর্শক মাতানো নাটকের নাম ‘আগুন চাবুক’।

বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির স্টুডিও থিয়েটার মিলনায়তনে বিকেল ৫-১৫ মিনিটে প্রথম এবং সন্ধ্যা ৭-১৫ মিনিটে আগুন চাবুক নাটকের দ্বিতীয় মঞ্চায়ন হয়। ‘আগুন চাবুক’ নাটকের বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেন শাহরান খান, লিটা খান, ইমরান হোসেন ইমু ও জিয়াউল হক জুয়েল। নাটকের গানের কথা লিখেছেন মান্নান হীরা।

নাটকটিতে মূলত সমাজে ধর্মের অপব্যাখ্যার স্বরূপ ফুটিয়ে তোলা হয়েছে। এখানে দেখানো হয়েছে একজন গ্রাম্য মসজিদের মুয়াজ্জিন কীভাবে ধর্মের দোহায় দিয়ে নারীদের মাঠে ঘাঁটে, কলকারখানায়, অফিস আদালতে কাজ করতে বারণ করেন। আবার নারীরা যদি এর প্রতিবাদ করেন, তাহলে তাঁদের উপর পুরুষতান্ত্রিক পৈশাচিক নির্যাতন চালানো হয়। শেষে, নারীদের প্রতিবাদের মুখে ধর্মের অপব্যাখ্যার সমাপ্তি ঘটে।

নাটকের দ্বিতীয় মঞ্চায়নে উপস্থিত ছিলেন আগুন চাবুক নাটকের লেখক ও নির্দেশক নাট্যকার মান্নান হীরা, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের অধ্যাপক ও স্টেট ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশের জার্নালিজম, কমিউনিকেশন অ্যান্ড মিডিয়া স্টাডিজ বিভাগের উপদেষ্টা রোবায়েত ফেরদৌস এবং উপস্থিত ছিলেন অন্যান্য বিশিষ্ট নাট্যজন।

নাটক শেষে অতিথিদের বক্তৃতায় রোবায়েত ফেরদৌস বলেন, নাটকটির রচনা, নির্দেশনা, প্রযোজনা এবং উপস্থাপনা, সব কিছুই প্রশংসার দাবীদার। তবে, বাস্তব জীবনের সাথে চরিত্রগুলো কতোটা মিল আছে তাই দেখার বিষয়। এটি নিঃসন্দেহে একটি সমাজ সচেতন মূলক নাটক।

Share.

Leave A Reply

forty two − 39 =