অভিবাসন নীতি পরিবর্তন: নির্বাহী আদেশে সই ট্রাম্পের

0

মানবাধিকার প্রশ্নে দেশ-বিদেশের জনমতের চাপে যুক্তরাষ্ট্রের অভিবাসন নীতি পরিবর্তন করতে বাধ্য হয়েছে মার্কিন প্রশাসন। এদিকে গতকাল একটি নির্বাহী আদেশে সই করেছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। 

এই আদেশে বলা হয়েছে, অবৈধ অভিবাসনের অভিযোগে আটক পরিবারের সদস্যরা একসাথে থাকতে পারবে। এদিকে কয়েক সপ্তাহ যাবত চলে আসা ট্রাম্প প্রশাসনের ‘জিরো টলারেন্স’ নীতির ফলে প্রায় ২৩৪২ জন শিশু তাঁদের বাবা-মা থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়।

এই ‘জিরো টলারেন্স’ নীতির কড়া সমালচোনা করেছেন সাবেক ড্যামোক্র্যাট ফাস্ট লেডি লরা বুশ। তিনি অশিংটন পোস্টের কলামে  বলেন, শিশুদেরকে তাদের বাবা-মায়ের কাছ থেকে আলাদা করা অত্যন্ত নিষ্ঠুর, অমানবিক এবং মনকে ক্ষতবিক্ষত করার মতো আচরণ।

বর্তমান ফাস্ট লেডি ম্যালানিয়া ট্রাম্পও ‘জিরো টলারেন্স’ সমালোচনায় বলেন, আমাদের এমন একটি দেশ গড়া প্রয়োজন, যেখানে সকল বিধি-বিধান মানা হয় এবং হৃদয় দিয়ে পরিচালনা করা হয়। তিনি শিশুদের বিচ্ছিন্ন নীতিকে খুব বেদনা দায়কও মনে করেন।

বিবিসি জানিয়েছে, ট্রাম্প বলেছেন, তাঁরা আর অভিবাসীদের শিশুদের আলাদা থাকার মতো হৃদয় বিদারক কোন ঘটনার পুনরাবৃত্তি চান না। ট্রাম্পের মেয়ে ইভাঙ্কাও অভিবাসন নীতি পরিবর্তনের পক্ষে ছিলেন।

Share.

Leave A Reply

thirty six ÷ 4 =